ছোট্ট শিমু, আমরা আমাদের কথা রেখেছি!-611259

March 9, 2018 7:05 AM

46 0

ছোট্ট শিমু, আমরা আমাদের কথা রেখেছি!-611259

ওর বাবা নির্বাক হয়ে তাকিয়ে আছেন। কথা বললাম। সহজ সরল মানুষ। অন্যের জমিতে কাজ করেন। আজকেও যথারীতি আরেকজনের জমিতে সার দিতে গিয়েছিলেন শিমুকে বাড়িতে একা রেখে। শিমুর বড় বোন মাদ্রাসায় গিয়েছে। আর ওদের মা শিমুর ছোট বোন আর ভাইকে নিয়ে সিলেটে আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে গেছেন। শিমু বাড়িতে একা থাকা অবস্থায় অপরাধী/অপরাধীরা শিমুকে ধর্ষণ পূর্বক হত্যা করে; নৃশংসভাবে হত্যা! শিমুর বাবার সাথে কথা বলে জানতে পারলাম, তার সাথে কারো জায়গা সম্পত্তি/আর্থিক বা অন্য কারণে কোন দ্বন্দ্ব নেই!

০৮ বছরের শিশু, প্রেম/প্রত্যাখ্যান কিংবা পরকীয়া সংক্রান্ত কিছু হবার সুযোগ নেই! তবে বটি দিয়ে ভয়াবহভাবে কুপিয়ে মুখমণ্ডল বিকৃত করে ফেলা হয়েছে। মনে হলো কেউ ক্ষোভের বশীভূত হয়ে এই নির্মম কাণ্ডটি ঘটিয়েছে। পূর্ব পরিচিত কেউ হবে হয়তো। ঘটনা স্থলের চারপাশটা ভালো করে চোখ বুলিয়ে নিলাম। দুই রুমের দো-চালা টিনের ঘরের যেখাটায় শিমুর লাশ পাওয়া যায়, সেই জায়গাটা এখনো রক্তে ভেসে যাচ্ছে; সারা বাড়িতে রক্তের গন্ধ! দুটি রক্ত মাখা বটি দা পড়ে আছে! আঁচ করতে পারলাম, আসামি এটলিস্ট দুই! নিহত শিমুর বাবা/বোনের সাথে কথা বলে বুঝলাম ওরা কাউকে সন্দেহ করছে না। সায়েদুল হক বললো, স্যার, আমি নিরীহ মানুষ; আমার কোন শত্রু নেই । মনে মনে বললাম, পাষন্ড অপরাধীরা কি আর এসব বুঝে!!

একথা শোনার পর, স্থানীয় বিশ্বস্ত লোকের মাধ্যমে খবর নিলাম। নাম বাচ্চু মিয়া, এই গ্রামেই বাড়ি। জানলাম, লোক সুবিধার না। দুজন, অফিসার পাঠিয়ে খবর নিলাম সেই চটপটিওয়ালা এখন কোথায় আছে। জানতে পারলাম, প্রতিদিন এই সময়ে (বিকেল ৫টা) সে স্টেশনে চটপটি বিক্রি করতে আসলেও আজ এখনো আসেনি। সন্দেহ বাড়লো ! তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্থানীয় তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে যেতে বলে আমরাও ম্যুভ করলাম! তদন্ত কেন্দ্রে গিয়ে দেখলাম মাঝবয়সী এক ব্যাক্তি, এক হারা গড়নের। চেহারায় বিরক্তি, ভয় আর অতি লোক দেখানো কনফিডেন্স পড়া যাচ্ছে। তাকে বলতে দিলাম সে গত তিনদিন কোথায়, কখন, কি করেছে, কার সাথে ছিলো। বলে গেলো। পুনরায় জিজ্ঞেস করলাম টাইম ওয়াইজ! এবার প্যাচ লাগিয়ে ফেললো! গড়মিল লক্ষ্য করলাম! সে যে গতকাল এ বাড়িতে এসেছিলো এই বিষয়টিও এড়িয়ে যায়! একটু থতমত খেলেও তার গলার জোর কমেনি! এমনটা হয়, আগেও দেখেছি!

বুঝলাম,,,,, । চোখে ভেসে ঊঠল একটি সহজ সরল বাবার নিস্পাপ শিশুকে কুপিয়ে হত্যা করছে মানুষরূপী পশু!

ধন্যবাদ টিম কুমিল্লার অভিভাবক সম্মানিত পুলিশ সুপার স্যার সহ অন্যান্য স্যারদের। ধন্যবাদ অফিসার ইনচার্জ, মনোহরগঞ্জ ও আইসি নাথেরপেটুয়াকে!

উত্স: kalerkantho.com

বিভাগ পাতা

Loading...