ভূত দেখলেন ট্রাম্প, কাঁদলেন মেলানিয়া -588952

January 13, 2018 11:11 AM

26 0

ভূত দেখলেন ট্রাম্প, কাঁদলেন মেলানিয়া -588952

ট্রাম্প ভোটের মাত্র এক সপ্তাহ আগে রজারকে গল্পচ্ছলে বলেন, ‘যা পেয়ে গেছি তা আমার স্বপ্নেরও বেশি। আমি পরাজয় নিয়ে ভাবছিই না, কারণ এ আসলে হেরে যাওয়া নয়। আমরা পুরোপুরি জিতে গেছি।’ শুধু কি তাই! ট্রাম্প এরই মধ্যে লিখিত বক্তব্য তৈরি করছিলেন ভোটে হারের পর প্রকাশ্যে কী বলবেন, যদিও মুখে বলছিলেন, নির্বাচন ছিনতাই হয়ে গেছে। আগুন ও উন্মত্ততা সঙ্গে নিয়ে হারের জন্য মুখিয়ে ছিলেন ট্রাম্প এবং তাঁর ছোট্ট প্রচারশিবিরের প্রতিটি যোদ্ধা। তারা জয়ের জন্য প্রস্তুত ছিল না। ট্রাম্পের ধারণা ছিল যে জেতার যোগ্যতা কেবল হিলারির লোকজনের আছে। ট্রাম্প মাঝেমধ্যেই বলতেন, ‘দে হ্যাভ গট দ্য বেস্ট, উই হ্যাভ গট দ ওর্স্ট, সবচেয়ে ভালোটা ওরা পেয়েছে, আমাদের জুটেছে মন্দগুলো।’ ট্রাম্পের প্রচার পর্বে যে সময়টা আমি (লেখক মাইকেল ওলফ) সঙ্গে কাটিয়েছি প্রায়ই মনে হয়েছে এ কী কাণ্ড, তাঁর চারপাশের প্রতিটি মানুষই তো ইডিয়ট!

প্রেসিডেন্ট যাঁরা হন তাঁদের তলায় রাজনৈতিক সিঁড়ি থাকে, রাজনৈতিক বন্ধুবান্ধব থাকে, ছিল না শুধু ট্রাম্পের। রিয়েল এস্টেট বিজনেস থেকেও কেউ নির্বাচনে আসেননি তাঁর মতো। ট্রাম্প আয়কর রিটার্ন জানাননি, জানাবেনই বা কেন, তিনি তো জানেন যে জিততে যাচ্ছেন না। ট্রাম্প মনে করেছেন, এই হেরে যাওয়াটাই তাঁর জয়! ট্রাম্প বিশ্বের সবচেয়ে বিখ্যাত মানুষটি হবেন। মেয়ে ইভানকা ও মেয়ে-জামাই কুশনার ধনীর দুলাল-দুলালী পরিচিতি ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক সেলিব্রিটি ও ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হয়ে উঠবেন। স্টিভ ব্যানন গণ্য হবেন টি পার্টি মুভমেন্টের মূল হোতা হিসেবে। মেলানিয়া ট্রাম্প ইচ্ছামতো স্থানে লাঞ্চ করতে যেতে পারবেন। আর এই সবই সবার অনায়াসে জয় হবে ৮ নভেম্বর, ২০১৬ পরাজয় নিশ্চিত হয়ে গেলে!

উত্স: kalerkantho.com

বিভাগ পাতা

Loading...